খেলাধুলা

‘বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ফিটনেস অন্য দেশের সঙ্গে তুলনীয় নয়’

বাংলাদেশের ক্রিকেট আগের চেয়ে অনেক বদলে গেছে। বেড়েছে আন্তর্জাতিক ম্যাচের সংখ্যা। বাড়তি ক্রিকেটার কম থাকায় ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে প্রায় একই দল সব ফরম্যাটে খেলে যাচ্ছে। যার ফলে চোটে পড়ছেন অনেক ক্রিকেটার।

গত কয়েক মাসে তাসকিন আহমেদ, শরীফুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ, নাঈম হাসানরা চোটে পড়েছেন। এর কারণ কি বেশি পরিমাণে ওয়ার্কলোড? প্রশ্নটা ছিল বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীস চৌধুরীর কাছে।

এমন প্রশ্নের জবাবে আজ সোমবার মিরপুর শের-ই-বাংলায় সাংবাদিকদের দেবাশীস চৌধুরী বলেন, ‘অবশ্যই। যখন জাতীয় দলের ক্যাম্পে খেলোয়াড়রা থাকেন তখন একটি সফটওয়্যার আমরা ফলো করি ওদের ওয়ার্কলোড ম্যানেজমেন্টের জন্য। এ ক্ষেত্রে আমরা কিছুটা সমস্যায় পড়ি যখন তারা বিসিএল বা এনসিএলের মতো টুর্নামেন্টে খেলতে যায়। অবশ্যই সর্বশেষ বছরগুলোতে যেহেতু আমাদের কিছু ইনজুরি কনসার্ন আছে আমরা আরো সতর্ক হব ইনজুরির ব্যাপারে। এবং ওয়ার্কলোড ম্যানেজমেন্টের ব্যাপারে ভালো করেই ফলো করতে পারব। ‘

তিনি আরো বলেন, ‘এটা পেস কিংবা স্পিন নয়। স্পিনারদেরও কিন্তু ওয়ার্কলোড ম্যানেজমেন্টের ব্যাপার আছে, যেহেতু তারা লম্বা সময় ধরে বোলিং করে। যদিও পেসাররা একটু দুর্বল। আমরা এ জন্য সারা পৃথিবীতে স্বীকৃত গ্রহণযোগ্য কিছু ফর্মুলা আছে সেগুলো ফলো করছি। আর যেহেতু আমাদের খেলোয়াড়দের ফিটনেস স্ট্যাটাস অন্যদের সঙ্গে তুলনীয় নয় সেহেতু বৈশ্বিক মানদণ্ডকে আমাদের ডমেস্টিক চাহিদার সঙ্গে সম্পর্ক রেখে কিছুটা মডিফাই করতে হচ্ছে। কিন্তু গত দুই-তিন বছর ধরে আমরা এ ধরনের ওয়ার্কলোড ম্যানেজমেন্ট করছি এবং ভবিষ্যতে এই অভিজ্ঞতা আমাদের আরো বেশি সাহায্য করবে এবং সুন্দর হবে। ‘

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button