সাধারণ

স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম’র উদ্যোগে ধুমনীঘাটে মাতৃত্ব দিবস পালন

 

খোকন বিকাশ ত্রিপুরা জ্যাক : “মা ও শিশুর জীবন বাঁচাতে, স্বাস্থ্য কেন্দ্রে হবে যেতে”এই স্লেগানে বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচ ও জাবারাং এর সহযোগিতায় এবং খাগড়াছড়ি জেলা ও মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম কর্তৃক আয়োজিত ধুমনীঘাট কমিউনিটি ক্লিনিকে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উদযাপন করা হয়েছে। ২৮মে শনিবার সকাল ১১টার দিকে ধুমনীঘাট ক্লিনিকে এ মাতৃত্ব দিবস উদযাপন করা হয়। এ সময় মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সভাপতি মোঃ শাহজাহান পাটোয়ারীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহালছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রতন কুমার শীল। অনুষ্ঠানে জাবারাং কল্যাণ সমিতির প্রশাসনিক কর্মকর্তা ধনেশ্বর ত্রিপুরা’র সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংস্থার কর্মসূচি সমন্বয়কারী বিনোদন ত্রিপুরা।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহালছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান রতন কুমার শীল বলেন, একজন মা নিরাপদভাবে যখন সন্তান প্রসব করতে পারবেন তখন সমাজ, জাতি ও রাষ্ট্র একজন সুস্থ নাগরিক উপহার পাবে। আর তিনি যখন অসুস্থ বা বিকালাঙ্গ শিশু জন্ম দেন তখনই সেই শিশু আমাদের সমাজে বা রাষ্ট্রে বোঝা হয়ে দাঁড়ায়। অতীব আনন্দের বিষয় হলো আমাদের পরিবারের মাতৃস্বাস্থ্য পরিচর্যার জন্য সরকার মাতৃত্ব ভাতা চালু করেছেন। সরকার দেশের নাগরিক সেবাদানের জন্য সর্বোচ্চ সেবা প্রদান করছেন। তাই আমাদেরকেও স্ব-স্ব অবস্থান থেকেই মাতৃস্বাস্থ্য উন্নয়নে ভুমিকা পালন করতে হবে। রক্ত গ্রুপ র্নিণয় ও স্বাস্থ্য সেবা সম্পর্কিত সচেতনতা বিষয়ে বক্তব্য রাখেন জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের যুব সংগঠন বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শাহাদাৎ হোসেন কায়েস, প্রধান শিক্ষক বিউটি ত্রিপরা, সেবা গ্রহণকারী ভূবন বালা ত্রিপুরা ও জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সভাপতি সাধন কুমার চাকমা।
মাতৃস্বাস্থ্য উন্নয়নে পুষ্টিকর খাবার নিয়মিত ও ডাক্তার চেক-আপসহ বিশ্রামের কোনো বিকল্প নেই। স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণের নূন্যতম ধারণা না থাকাতেই দেশের অনেক মায়েদের গর্ভে ঠোঁট কাটা ও প্রতিবন্ধী শিশু জন্ম দিয়ে থাকে। বক্তারা বৈদ্য, কবিরাজের চিকিৎসাকে উপেক্ষা করে আধুনিক চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে সকলকে হাসপাতালমুখী হওয়ার জন্য আহবান জানান।
সভায় মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লক্স এর উপ-সহকারী মেডিক্যাল অফিসার রুপময় তংচঙ্গ্যা আলোচক হিসেবে মাতৃস্বাস্থ্য সেবা প্রদান ও গ্রহণের উপর সচেতনতামূলক পরামর্শ আলোকপাত করেন। তিনি গর্ভবতী নারীর গর্ভকালীন চিকিৎসা সেবা নিতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান। আলোচনা সভা শেষে গর্ভবতী মায়েদের গর্ভকালীন নিয়মিত চেকআপ এবং প্রয়োজনীয় ঔষধ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

 

 

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button