সাধারণ

মেয়ের সাথে অভিমানে গলায় ফাঁস দিয়ে মায়ের আত্মহত্যা

মানিকছড়ি (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি:-

মেয়ের সাথে অভিমানে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে পিয়ারা বেগম (৩৫) নামের নারীর মারা গেছে। তিনি মানিকছড়ি উপজেলার তিনটহরীর গোদাতলী এলাকার মো. আবু তাহের’র স্ত্রী। গতকাল (১৬ ডিসেম্বর) রাতে এ ঘটনা ঘটে। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, খুব অল্প বয়সেই তার বড় মেয়ে মাইনুরকে বিয়ে দেন। সেই মেয়ের সংসারে প্রায় পাঁচ মাসের একটি ছেলে সন্তানও রয়েছে। অভাবের সংসারে খুব দ্রুত সন্তান নেয়ায় মেয়েকে বকাঝকাও করতেন মা পিয়ারা বেগম। মা ও পরিবারের বকাঝকা শুনে মেয়ে মাইনুর বলতেন, অল্প বয়সে বিবাহ দিয়েছ, সন্তান নিলাম কেন তাও গালমন্দ করছ। স্বামীর সংসারেও শান্তি নাই তোমাদের কাছে এলেও শান্তি পাইনা। এক পর্যায়ে গতকাল দুজনার মধ্যে আবারও কথাকাটি হলে দুজনেই মেয়ের নানার বাড়ি (নিহতের বাবার বাড়ি) পাক্কাটিলায় যায়। সেখানেও কথাকাটাকি হয়। পরে নানিকে নিয়ে বাড়িতে ফিরে আসে। সবাই ঘুমিয়ে পড়লে কোনো এক সময়ে পিয়ারা বেগম বাড়ির পার্শ্বের একটি ছোট জাম গাছে গলায় ফাঁস দেয়। হঠাৎ ঘুম ভাঙ্গলে ঘরে কোথাও না পেয়ে বাহিরে বেরিয়ে খোঁজাখুঁজি করলে বাড়ির পাশে থাকা জাম গাছের সাথে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় ঝুলতে দেখে। পরে ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে ১.১৫ টায় মানিকছড়ি মেডিকেলে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত গোষণা করেন। ঘটনার সত্যতার নিশ্চিত করে মানিকছড়ি থানার এসআই শংকর জানান, নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্ত মেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button