অর্থনীতিআন্তর্জাতিক

ভেনিজুয়েলার জ্বালানি তেল যাবে ইউরোপে

সমুদ্র দিয়ে রাশিয়ার জ্বালানি তেল আমদানি না করার ব্যাপারে একমত হয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। এতে রাশিয়ার প্রায় ৯০ শতাংশ জ্বালানি তেল আমদানি বন্ধ হয়ে যাবে এ অঞ্চলের দেশগুলোর। সেই ঘাটতি পূরণে অন্যতম উৎস হিসেবে এবার কাজে লাগানো হচ্ছে ভেনিজুয়েলাকে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ইতালির তেল কম্পানি এনি এসপিএ এবং স্পিনের রেপসল এসএ আগামী মাস থেকে ভেনিজুয়েলার তেল ইউরোপে রপ্তানি করতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্র এ বিষয়ে সবুজ সংকেত দিয়েছে। বিষয়টির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অন্তত পাঁচজন ব্যক্তি রয়টার্সকে নিশ্চিত করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার কারণে দুই বছর আগে ভেনিজুয়েলার তেল রপ্তানি থেমে যায়।

একজন বলেছেন, এনি ও রেপসোল যে তেল পাবে তার পরিমাণ খুব বেশি নয় ও বিশ্ববাজারে তেলের দামে সামান্য প্রভাব পড়তে পারে। কিন্তু ইউরোপে ভেনিজুয়েলার দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা তেলের প্রবাহ ফের শুরু হয়েছে। এটি প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর জন্য একটি প্রতীকী উৎসাহ হতে পারে। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর একটি চিঠিতে কম্পানি দুটিকে শিপমেন্ট ফের শুরু করার অনুমোদন দিয়েছে।

বাইডেন প্রশাসন আশা করছে, ভেনিজুয়েলার তেল ইউরোপকে রাশিয়ার ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে সহায়তা করবে। রাশিয়ার কাছ থেকে তেল আমদানি দুই-তৃতীয়াংশ বন্ধ করতে ইইউ নেতারা একমত হলেও হাঙ্গেরির আপত্তির কারণে আপাতত পাইপলাইনের মাধ্যমে আমদানিতে নিষেধাজ্ঞার প্রভাব পড়বে না। যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরবের পর বিশ্বের তৃতীয় সর্বোচ্চ জ্বালানি তেলের মজুদ রাশিয়ায়। রয়টার্স।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button