সাধারণ

বাড়ি ফেরা হলো না ; মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় পিতা-পুত্রের মৃত্যু!

মো. ইসমাইল হোসেন, মানিকছড়ি প্রতিনিধি:-

খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলার বুদংপাড়া নামক এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় পিতা-পুত্রের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আরো দুজন আহত হয়েছে! নিহতেরা হলেন, মানিকছড়ি উপজেলার বিশিষ্ট্য চাল ব্যবসী জীবন চন্দ্র মজুমদার (৫০) ও তার ছোট ছেলে অর্নব মজুমদার রাজদ্বীপ (১১)! আহতরা হলেন, মানিকছড়ি উপজেলার মহামুনি গোদারপাড় এলাকার মো. রফিকুল ইসলামের ছেলে মেহেদী হাসান লাভলু (২০) ও গাড়ির হেলপার আব্দুল মালেকের ছেলে মো. রাশেদ (১৯)। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম আঞ্চলিক সড়কের গুইমার উপজেলার বুদংপাড়ার রবি টাওয়ার সংলগ্ন এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে! পুলিশ ও প্রদক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, খাগড়াছড়িগামী সিমেন্ট বোঝাই একটি ট্রাক গুইমারা উপজেলার বুদংপাড়ার রবি টাওয়ার সংলগ্ন এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারালে সড়কের পাশে থাকা গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ট্রাকের সামনের অংশ ধুমড়ে মুচড়ে যায় এবং গাড়ির ভেতরে থাকা চারজনই আটকা পড়েন। পরে স্থানীয়রা এসে গাড়ির হেলপারকে উদ্ধার করে মাটিরাঙ্গা হাসপাতালে প্রেরণ করলেও অপর তিনজনকে পুলিশের ক্যারিংগাড়ির সাহায্যে তাদের উদ্ধার করা হয়। পুলিশ, সেনাবাহিনী, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়দের যৌথ প্রচেষ্টায় প্রায় তিন ঘন্টা পর তাদের উদ্ধার করা হয়! নিহতের স্ত্রী লাভলী মজুমদার জানিয়েছেন, তার স্বামী জীবন মজুমদার ব্যবসায়ীক কাজে ও তার ছোট ছেলে অর্নব মজুমদার খাগড়াছড়ি সদরে মামার বাড়িতে বেরানো উদ্যেশ্যে যাচ্ছিলেন! যেই ট্রাকে করে তারা যাচ্ছিলেন সেই ট্রাকে করে খাগড়াছড়ি থেকে চাল নিয়ে ফেরার কথা ছিল তার স্বামী জীবন মজুমদারের! আর ছেলে অর্নপ এ মাসের শেষে নাগাদ মামার বাড়ি বেড়ানো শেষে ফেরার কথা ছিল! ছেলে অর্নব মানিকছড়ি উপজেলার রানী নিহার দেবী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। কিন্তু সড়ক দুর্ঘটনায় তাদের আর বাড়ি ফেরা হলো না! ংংং ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গুইমারা থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, বর্তমানে আহত ড্রাইভার এবং হেলপার মাটিরাঙ্গা হাসপাতালে চিকিৎসাধীণ রয়েছেন। আর সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত পিতা-পত্রের লাশ আইনি প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তরের কার্যক্রম চলছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button