পিসিএনপির নতুন নেতৃত্বে কাজী মুজিব ও আলমগীর কবির

চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ

আজ (৩০ অক্টোবর) শনিবার চট্টগ্রামে সংগঠনের কাউন্সিল পরবর্তী নির্বাচনে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটের মাধ্যমে তারা নির্বাচিত হন।

পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের নেতৃবৃন্দের সূত্রে জানা গেছে, এই নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতি পদে সাবেক সভাপতি আলকাছ আল মামুন ভূঁইয়া এবং সিনিয়র সহ সভাপতি কাজী মুজিবুর রহমান মনোনয়ন পত্র জমা দেন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলমগীর কবির এবং যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট আলম খান মনোনয়ন পত্র জমা দেন।

এর পর গত ৩০ অক্টোবর পার্বত্য চট্টগ্রামে নাগরিক পরিষদের দীর্ঘ পথযাত্রায় এই প্রথম প্রত্যক্ষ ভোটের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় কমিটির শীর্ষ পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সম্পূর্ণ গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচন কাউন্সিল গঠন করে প্রত্যক্ষ ভোটের মাধ্যমে এই নির্বাচনে আগামী দুই বছরের জন্য পার্বত্য বাঙ্গালীদের অধিকার আদায়ের আন্দোলন এর প্রতিনিধি নির্বাচন করেন ভোটাররা।

এই নির্বাচন উপলক্ষে ইতোমধ্যেই প্রার্থীরা তিন পার্বত্য জেলা চষে বেরিয়েছেন, ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রার্থনা করেছেন, সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক ক্যাম্পেইনিং করেছেন যা ইতিপূর্বে কখনো ঘটেনি। ফলে নির্বাচনকে ঘিরে তিন পার্বত্য জেলায় বাঙালি রাজনীতিতে চাঙ্গাভাব পরিলক্ষিত হয়েছে। ভোটার মূল্যায়িত হয়েছে।

 

কাউন্সিল হওয়ার পূর্বে এক পদত্যাগ ও বক্তব্যের মাধ্য সাবেক সভাপতি কাজী মুজিবকে সমর্থন করে নির্বাচন থেকে সড়ে দাড়ান। সেই কারণে সভাপতি পদে কাজী মুজিবুর রহমান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

এই নির্বাচনে ভোটার ছিলেন ৬২ জন কাউন্সিলর। এরমধ্যে জন ভোট প্রদান করেন।

প্রদত্ত ভোটের মধ্যে সাধারণ সম্পাদক পদে আলমগীর কবির ৪৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন এবং তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী এডভোকেট আলম খান ১৫ ভোট পান।

নির্বাচনে জয়লাভের নব নির্বাচিত সভাপতি কাজী মুজিবুর রহমান বলেন, নির্বাচিত হওয়া মানেই দায়িত্ব পাওয়া। এখানে যারা কাউন্সিলর ছিলেন। তারা সকলেই দীর্ঘদিনের বাঙালি আন্দোলনের নেতা। তারা সকলে মিলে আমার উপর আস্থা স্থাপন করেছে এজন্য তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। আমি আমার কাজের মাধ্যমে সেই আস্থার প্রমাণ দিতে চাই।

অন্যদিকে নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক আলমগীর কবির বলেন, আমি পার্বত্য চট্টগ্রামের সার্বভৌমত্ব রক্ষা এবং মাটি ও মানুষের অধিকার রক্ষায় অঙ্গীকারবদ্ধ। এখন সেই অঙ্গীকার পুরণের পালা।

 

আলীকদমের উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের নির্বাচন কাউন্সিল এই নির্বাচন পরিচালনা করেন।

সামঞ্জস্যপূর্ণ সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।