রামগড়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ; ধর্ষক পলাতক

রামগড়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ ধর্ষক পলাতক

 

রামগড় অফিস:

জেলার রামগড়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরী (১৭) কে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার রামগড় থানায় ধর্ষণের মামলা করেছে কিশোরীর পিতা।

পুলিশ জানায়, রবিবার রামগড়ের পাতাছড়া ইউনিয়নের সালদা এলাকার বাসিন্দা কিশোরীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে টিপু (২২) নামে এক যুবক বাড়ির পাশের জঙ্গলে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। অভিযুক্ত টিপু মানিকছড়ির বাটনাতলী ইউনিয়নের মুসলিমপাড়ার মানিক মিয়ার ছেলে বলে জানা গেছে।

কিশোরীর পিতা বলেন, মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয়ের সূত্র ধরে  ৩-৪ মাস ধরে টিপু তাদের বাড়িতে আসা যাওয়া করতো। বিশেষ করে বাড়িতে কেউ না থাকা অবস্থায় টিপু এসে মেয়ের সাথে দেখা করতো। একইভাবে রবিবার (১ নভেম্বর) দুপুরে মেয়েটি বাড়ির পাশের জমিতে গরু বাঁধতে গেলে টিপু ঐ সময়ে এসে কথা আছে বলে পাশের জঙ্গলে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় মেয়েটির আর্তচিৎকার শুনে লোকজন এগিয়ে এলে টিপু দৌঁড়ে জঙ্গলের ভিতরে পালিয়ে যায়।

রামগড় থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ মনির হোসেন বলেন, ভিকটিম ও তার বাবা সোমবার সকালে থানায় এসে অভিযোগ করেন। তাদের অভিযোগ আমলে নিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, ভিকটিমকে খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে ডাক্তরী পরীক্ষা করানো হয়েছে এবং ভিকটিম ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ২২ ধারায় জমানবন্দি দিয়েছে। আসামীকে গ্রেফতারে পুলিশ তৎপরতা চালাচ্ছে।
বিস্তারিত

সামঞ্জস্যপূর্ণ সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

1 × two =