খাগড়াছড়িতে যত্রতত্র ইটভাটা বিপন্ন হচ্ছে পরিবেশ

সবুজ পাতা ডেস্ক : খাগড়াছড়িতে প্রতি বছর নতুন নতুন অবৈধ ব্রীকফিল্ড নির্মানের প্রভাবে পরিবেশ ও জীববৈচিত্র ধ্বংসের মুখে পড়ছে। এ সব অবৈধ ব্রীকফিল্ডের মালিকরা এতোটাই ক্ষমতাধর যে, অবৈধ কার্যক্রম দেখেও তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন তেমন কোন আইনি পদক্ষেপ গ্রহন করতে পারে না। দিন দিন বেপরোয়া এ সব প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম এতোটাই বৃদ্ধি পাচ্ছে যে, আগামী কয়েক বছরের মধ্যে এখানে প্রাণীকুল বেঁচে থাকার মতো পরিবেশ থাকবেনা।

সচেতন মহল মনে করে, পার্বত্য চট্টগ্রামের জীববৈচিত্র ও প্রাকৃতিক পরিবেশের ভারসাম্য বিনষ্টে অবৈধ ব্রীকফিল্ডগুলোর প্রভাব সবচেয়ে বেশী। জ্বালানি হিসেবে লক্ষ লক্ষ টন অপরিপক্ক/পরিপক্ক গাছের টুকরো নির্বিচারে পোড়ানোর কারনে এখন আর আগের মতো বনজ সম্পদ নাই। ইতিমধ্যে বিনষ্ট হয়েছে জাম,কড়ই,কনাক ও চাপালিশ গাছের মতো দেশীর জাতের নানা মুল্যবান গাছ। যা আছে তাও রক্ষা করার বা দেখার যেনো কেউ নাই। ফলে আগের মতো শোনা যায় না শিয়াল, হরিণ আর ময়না,শ্যামা ও কোকিলের মতো পশুপাখির ডাক। নাই গভীর অরণ্যের নিস্তব্ধতা। এতো কিছু ঘটে যাচ্ছে চোখের সামনে জেনেও নেই পরিবেশ ও জীববৈচিত্র রক্ষায় সরকারী বা পরিবেশ অধিদপ্তরের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ বা আগামীর পৃথিবীকে বাসযোগ্য রাখার পরিকল্পনা।

বিস্তারিত

সামঞ্জস্যপূর্ণ সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

six + 5 =